** তৈলাক্ত ত্বকের জন্য কিছু আয়ুর্বেদিক প্যাক ** Leave a comment

তৈলাক্ত ত্বকে
দ্রুত ময়লা জমার কারণে বন্ধ হয়ে যায় লোমকূপ। তাই এ ধরণের ত্বক সবসময়ই
হাইড্রেটেড রাখার প্রয়োজন। এছাড়া এতে ব্রণ হওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। ফলে
তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীরা চাইলেও অনেক কিছু ব্যবহার করতে পারেন না। তবে
চিন্তার কিছু নেই। আয়ুর্বেদিক কিছু প্যাক আছে যা তৈলাক্ত ত্বকের অধিকারীরা
নির্ভয়ে ব্যবহার করতে পারেন। আসুন জেনে নেই সেই প্যাকগুলো সর্ম্পকে।
১। চন্দনের গুঁড়ো
দুই চামচ চন্দনের গুঁড়ো , কাঁচা দুধ একসাথে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই
প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সব ধরণের
ত্বকের অধিকারীরাই এই প্যাকটি ব্যবহার করতে পারেন।
২। তুলসী ফেসপ্যাক
তুলসী সব সময় ত্বকের সাথে মানিয়ে যাবে, এমনটি নয় । কিন্তু এর
অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান ত্বক সুস্থ রাখতে
সাহায্য করে। কয়েকটি তুলসী পাতা পানি দিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। এবার
এটি ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে পেস্ট করুন, এক চিমটি হলুদ এবং এক চামচ লেবুর
রস মেশান। সবগুলো উপাদান একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। প্যাকটি ত্বকে
ব্যবহার করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। টকদই এবং হলুদের ফেসপ্যাক
ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে হলুদ বেশ কার্যকর একটি উপাদান। আর টকদই ত্বকে
তেল নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। হলুদ এবং টকদইয়ের প্যাক ত্বকের তেল নিয়ন্ত্রণ করে
এবং ত্বক হাইড্রেটেড রাখে। আধা কাপ টকদই এবং এক চামচ মধু, এক চামচ লেবুর রস
এবং এক চামচ হলুদের গুঁড়ো একসাথে মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি
ত্বকে ব্যবহার করুন। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৪। মুলতানি মাটি
ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে মুলতানি মাটি বেশ কার্যকর। কিছু পরিমাণ
মুলতানি মাটির সাথে লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। শুকিয়ে গেলে পানি
দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে সাহায্য করে।

৫। পেঁপের রস
ত্বকের অতিরিক্ত তেল শুষে নিতে পেঁপের রস বেশ কার্যকর। এটি লোমকূপ থেকে
ধুলাবালি দূর করে এবং ত্বক পরিষ্কার করে থাকে। আয়ুর্বেদিক অনুযায়ী পেঁপে
শুধু ত্বক পরিষ্কারক নয় এটি ত্বক এক্সফলিয়েট করে ভিতর থেকে। কিছু পরিমাণ
পেঁপের রস ত্বকে ব্যবহার করুন। এটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। কিছুক্ষণ পর
শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৬। দুধ
একটি তুলোর বলে দুধ
ভিজিয়ে নিয়ে সেটি ত্বকে ম্যাসাজ করে লাগান। কিছুক্ষণ পর শুকিয়ে গেলে পানি
দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি দীর্ঘ সময় ত্বক হাইড্রেটেড রাখবে। অতিরিক্ত তেল,
ধুলাবালি শুষে ত্বক পরিষ্কার করবে দুধ।

৭। নিম
তৈলাক্ত ত্বকের
জন্য নিম অনেক বেশি উপকারি। নিম ফেসপ্যাক ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন, আর এই
ফেসপ্যাক ঘরে তৈরি করে নিতে পারেন। কিছু পরিমাণ নিম পাতা ব্লেন্ড করে পেস্ট
তৈরি করুন। নিমের পেস্টের সাথে এক চামচ হলুদ, এক চামচ লেবুর রস একসাথে
মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিন। এই প্যাকটি ত্বকে ব্যবহার করুন। ৩০ মিনিট পর
শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

সূত্র: বোল্ডস্কাই

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

0